৩ বছরে আইডিআরএ’র আয় ১২৪ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) ৩ বছরে প্রায় ১২৪ কোটি টাকা আয় করেছে। বীমা খাত দেখভালের সরকারি এই সংস্থা ২০১২ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এ আয় করেছে।

আয়ের খাতগুলো হলো- বীমা কোম্পানির নিবন্ধন নবায়ন ফি, এমপ্লয়ার অব এজেন্ট এবং এজেন্ট লাইসেন্স প্রদান ফি, বীমা জরিপকারির লাইসেন্স নবায়ন ফি, বীমা কোম্পানির শাখা খোলার ফি। আইডআিরএ’র বীমা সমীক্ষা প্রতিবেদন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সরকারি এই সংস্থা সবচেয়ে বেশি আয় করেছে প্রতিটি ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির নিবন্ধন নবায়ন বাবদ। এ খাত থেকে সংস্থাটির আয় ১১৫ কোটি ১৯ লাখ ৯৭ হাজার ৬৫০ টাকা। বর্তমানে জীবন বীমা করপোরশেন ও ৩১টি লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি এবং সাধারণ বীমা করপোরশেন ও ৪৫টি নন-লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ব্যবসা পরচিালনা করছে।

বিভিন্ন লাইফ ও নন-লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির শাখা খোলার জন্য ২০১২ হতে ২০১৬ এর মার্চ পর্যন্ত আইডআির’র আয় হয়েছে প্রায় ১ কোটি ১২ লাখ ১৯ হাজার টাকা। দেশব্যাপী বীমা কোম্পানিগুলোর ৭ হাজার ৫৭৩টি শাখা রয়েছে। এরমধ্যে লাইফ কোম্পানির শাখা রয়েছে প্রায় ৬ হাজার ৩১১টি ও নন লাইফ কোম্পানির শাখা রয়েছে ১ হাজার ২৬২টি।

অন্যদিকে এজেন্ট ও এমপ্লয়ার অব এজেন্ট লাইসেন্স ফি বাবদ কর্তৃপক্ষের আয় হয়েছে ৭ কোটি ৩৮ লাখ ৬৬ হাজার ৭৪২ টাকা। ২০১২ সালরে মে থেকে ২০১৫ সালরে ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন কোম্পানির প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার ৫২৭টি এমপ্লয়ার অব এজেন্ট এবং এজেন্ট লাইসেন্স দেয়া হয়েছে।

আইডিআরএ থেকে এখন পর্যন্ত ১৩৮টি সার্ভে কোম্পানির তাদের লাইসেন্স নিয়মিত নবায়ন করছে। ২০১২ হতে ২০১৬ এর মার্চ পর্যন্ত সার্ভে কোম্পানির লাইসেন্স নবায়ন বাবদ কর্তৃপক্ষের আয় হয়েছে প্রায় ২০ লাখ ১৪ হাজার ৮৬০ টাকা।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ গঠিত হওয়ার পর থেকে সর্বমোট ২৮ কোটি ৪৭ লক্ষ ৪৮ হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেয়া হয়েছে বলে ওই সমীক্ষা প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে আইডিআরএ।